শিরোনাম :
ধামইরহাট বড়থা ডি আই ফাজিল মাদ্রাসার বেহাল অবস্থা নওগাঁয় ডিবি পুলিশের অভিযানে ১০১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ ধামইরহাটে অপহরণ মামলার আসামি ইয়াদুল পুলিশের হাতে আটক ধামইরহাটে অর্ধ বার্ষিকী সাফল্য উদযাপন ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে যুব সংগঠন ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত নওগাঁর পত্নীতলায় তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৫ বগুড়ায় রেলের দূরত্ব ভিত্তিক রেয়াত বাতিলের প্রতিবাদে মানববন্ধন চাঁদপুর জেলায় ফরিদগঞ্জ উপজেলায় খাজে আহমেদ মজুমদার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত ধামইরহাটে গ্রামের তরুণদের উদ্যোগে মসজিদের ধান কাটা চলছে নওগাঁয় মাদকসহ র‌্যাবের হাতে আটক ১

চুনারুঘাটে স্ত্রীর বড় বোনের মেয়ের দিকে কুনজর এর প্রতিবাদ করায় শালিকা কে হত্যা করে দুলাইভাই,হত্যার দায় স্বীকার।করে আদালতে জবানবন্দি

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২৪৩ বার পঠিত

হৃদয় এস এম শাহ্-আলম স্টাফ রিপোর্টারঃস্ত্রী প্রবাসে থাকার সুযোগে শালিকা জুনেরার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে দুলাভাই সুহাগের। শুধু তাই নয় স্ত্রীর বড় বোনের মেয়ের দিকে কু-দৃিষ্ট দেয় লম্পট সুহাগ। লম্পট দুলাভাইর কো-মতলব বুঝতে পেরে শালিকা জুনেরা দুলাভাইকে শাসিয়ে দেয়। এর জের ধরে গত মঙ্গলবার রাতে শালিকার সাথে বাকবিতন্ডা নিয়ে শালিকা জুনেরা খাতুন(১৯) কে ওরনা পেঁছিয়ে হত্যার পর আত্নহত্যা বলে চালিয়ে দেয় দুলাইভাই সুহাগ। ঘটনাটি ঘটেছে চুনারুঘাট সদর ইউনিয়ের শেখেরগাও গ্রামে। হত্যার পর দুলাভাই নিজেই শালিকার লাশ তড়িঘড়ি করে কাঁপন দাপন করার ব্যবস্থা করেন। বিষয়টি জুনেরার আআত্নীয় স্বজনদের সন্দেহ হলে তারা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে মর্গে প্রেরণ করে। নিহত জুনেরা শেখেরগাও গ্রামের আব্দুর ছিতারের মেয়ে। গতকাল বুধবার রাতে মেয়ের( জামাই) সুহাগকে আসামী করে চুনারুঘাট থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন আব্দুর ছিতার মিয়া । মামলা দায়ের পর চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আলী আশরাফের নির্দেশনায় ইন্সপেক্টর তদন্ত চম্পক দাম এর নেতৃত্বে এসআই অলক বড়ুয়া, এসআই ভূপেন্দ্র চন্দ্র বর্মন, এসআই মোতালিবসহ একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে শশুর বাড়ি এলাকা থেকে ঘাতকদুলাইভাই সুহাগ(৩০) কে আটক করেন। আটক সুহাগ হবিগঞ্জ পৌর এলাকার ২নং ওয়ার্ডের যশোরয়াব্দা গ্রামের সবুজ মিয়ার পুত্র।
আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সুলতান উদ্দিন প্রধানের আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে ঘটনার বর্ননা দেয় ঘাতক সুহাগ। পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বিগত ১০ বছর পুর্বে চুনারুঘাট উপজেলার শেখেরগাও গ্রামের আব্দুর ছাতিরের মেয়ে ছিতারাকে বিয়ে করে সুহাগ। বিয়ে পর সুহাগ তার শশুর বাড়িতেই বসবাস করে আসছিল। সুহাগের তিন বছরের শাওন
নামের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। কিছুদিন পর সুহাগ তার স্ত্রী ছিতারাকে সৌদি আরব পাঠিয়ে দেয়। সুহাগের অবুঝ সন্তানের দেখাশোনা করতেন শালিকা জুনেরা। এ সুবাধে শালিকার সাথে সুহাগের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে বলে সুহাগ জানায়। জীবিকা তাগিদের জন্য জুনেরাও প্রবাসে চলে যায়। প্রবাসে ৪ মাস অবস্থানের পর করোনার কারণে বিগত প্রায় দেড়মাস পুর্বে জুনেরা দেশে চলে আসে। জুনেরার পরিবার জুনেরাকে বারবার বিয়ে দিতে চাইলে লম্পট দুলভাই পাত্রদেরকে ভূলবুঝিয়ে ফিরিয়ে দিত। লম্পট সুহাগের জন্য বিয়ে দিতে পারেনি পরিবার। নিহত জুনেরার পরিবারে পিতা মাতা ও বড় বোনের মেয়েকে নিয়ে থাকতেন সুহাগ। লম্পট দুলাইভাই তাদের স্বরলতার সুযোগ নিয়ে স্ত্রী ছিতারা ও শালিকা জোনেরার অর্থকড়ি ধুমধাড়াক্কা খরছ করে চলত। বোনের সুখের জন্য এবং অবুঝ বাচ্চার কথা চিন্তা করে পিত্রালয়ে আশ্রয় দেন জুনেরার পরিবার । কিন্তু
লম্পট দুলাইভাই জোনেরার বড় বোনের মেয়ে (ভাগিনির) দিকে কু-দৃষ্টি দেওয়া নিয়ে প্রতিবাদ কারায় তাকে হত্যা করে দুলাভাই সুহাগ। ঘটনার সত্যতা
নিশ্চিত করে থানার ওসি মো: আলী আশরাফ জানান, নিহত জুনেরার পিতা মামলা দায়ের পর আমরা আসামী গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করেছি এবং হত্যার ব্যবহ্নত ওরনা ও বটি উদ্ধার করা হয়েছে। আসামী সুহাগ আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দী প্রদানের পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com