শিরোনাম :
ধামইরহাট বড়থা ডি আই ফাজিল মাদ্রাসার বেহাল অবস্থা নওগাঁয় ডিবি পুলিশের অভিযানে ১০১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ ধামইরহাটে অপহরণ মামলার আসামি ইয়াদুল পুলিশের হাতে আটক ধামইরহাটে অর্ধ বার্ষিকী সাফল্য উদযাপন ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে যুব সংগঠন ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত নওগাঁর পত্নীতলায় তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৫ বগুড়ায় রেলের দূরত্ব ভিত্তিক রেয়াত বাতিলের প্রতিবাদে মানববন্ধন চাঁদপুর জেলায় ফরিদগঞ্জ উপজেলায় খাজে আহমেদ মজুমদার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত ধামইরহাটে গ্রামের তরুণদের উদ্যোগে মসজিদের ধান কাটা চলছে নওগাঁয় মাদকসহ র‌্যাবের হাতে আটক ১

দুই যুবলীগ নেতার ঝুট ব্যাবসাকে কেন্দ্র করে দুই দলের সংঘর্ষে আহত ২০

শম্পা জামান, স্টাফ রিপোর্টারঃ
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২ মার্চ, ২০২১
  • ২৪৯ বার পঠিত

সাভারের আশুলিয়ায় ঝুট ব্যবসা দখলকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ২ জন আটকসহ ১৭ টি মোটরসাইকেল ও একটি পিকআপ জব্দ করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২ মার্চ) সকাল ১০ টার দিকে আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের পরিচয় পাওয়া না গেলেও আহতদের সবাই যুবলীগ নেতা কবির সরকারের সমর্থক বলে জানা গেছে।

এলাকাবাসি জানায়, ঝুট ব্যবসা কেন্দ্র করে সকালে ওই এলাকায় আদিপত্য বিস্তারের জন্য থানা যুবলীগের একটি গ্রুপ মোটরসাইকেল বহর নিয়ে যায়। এসময় ভাদাইলের ভিতর দিয়ে মোটরসাইকেল বহরটি গেলে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। পরে এলাকাবাসী মসজিদের মাইকে ডাকাত পড়েছে বলে মাইকিং করে যুবলীগ বহর ঘেরাও করে। এসময় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় যুবলীগের প্রায় ১৭ টি মোটরসাইকেল ভাঙ্গচুর করে এলাকাবাসী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, স্থানীয় ইউপি সদস্য সাদেক ভুইয়া ও আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক কবির সরকারের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক কবির হোসেন সরকার বলেন, আমি ডিইপিজেডের ভিতরে এক্সপেরিয়েন্স লিমিটেড নামক একটি কারখানায় গত তিন বছর ধরে ব্যবসা করে আসছিলাম। গতকাল সোমবার ছাদেক ভুঁইয়ার ছেলে ওই কারখানায় গিয়ে আমার লেবারদের বের করে দেয়। এ ঘটনা আমি থানায় অবিহিত করেছি। আমার ম্যানেজার ভয় পাওয়ায় আজ কয়েকটি মোটরসাইকেলসহ আমার লোকজন ম্যানেজারকে কারখানায় পৌছে দিতে যায়। এসময় পিছন থেকে সাদেক ভুঁইয়ার লোকজন হামলা করে।

ধামসোনা ইউপি সদস্য ছাদেক ভুঁইয়া বলেন, আমি সকালে নাস্তা করছিলাম এসময় ২০ থেকে ২৫ টি মোটরসাইকেলসহ ২ থেকে ৩ শত লোক আমার বাড়িতে হামলা করে। এসময় ২ থেকে ৩ টি ফাঁকা গুলি করে তারা। পরে আমি নিজেই মাইকে মাইকিং করতে বলেছি, যে আমার বাড়ির ভিতরে ডাকাত পড়েছে। মাইকিং হলে এলাকাবাসী সমাবেত হলে হামলাকারীরা মোটরসাইকেল রেখে পালিয়ে যায়।

আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১৭ টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করেছে। একই সাথে ঘটনা অধিকতর গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com