শিরোনাম :
চাঁদপুর ফরিদগঞ্জ ষোলদানা চৌধুরী বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা ধামইরহাটে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিক ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ধামইরহাটে জোরপূর্বক গাছ কাটার অভিযোগ উলিপুরে এম আর ফাউন্ডেশনের অঙ্গ সংগঠন নেফড়া কাঁঠালীপাড়া মানব কল্যান সংঘের ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত ধামইরহাট বড়থা ডি আই ফাজিল মাদ্রাসার বেহাল অবস্থা নওগাঁয় ডিবি পুলিশের অভিযানে ১০১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ ধামইরহাটে অপহরণ মামলার আসামি ইয়াদুল পুলিশের হাতে আটক ধামইরহাটে অর্ধ বার্ষিকী সাফল্য উদযাপন ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে যুব সংগঠন ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত নওগাঁর পত্নীতলায় তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৫

দেড় লাখ টাকায় চোখের দৃষ্টি ফিরে পেতে পারে ছোট্ট শিশু ইয়াসিন

স্টাফ রিপোর্টারঃ মোঃ রুবেল ইসলাম সিডর
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১
  • ২৮৩ বার পঠিত

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার বোকাইনগর ইউনিয়নের ইয়ারপুর গ্রামের হতদরিদ্র আবুল বাসারের পুত্র ইয়াসিন মিয়া (৪ বছর ৫ মাস) কঞ্চির আঘাতে নষ্ট হয়ে যায় বাম চোখের কর্ণিয়া। দেড় লক্ষ টাকা হলেই চোখ ফিরে পাবে ছোট্ট এই শিশুটি।
দিনমজুর আবুল বাসার ২ ছেলে আর ১কন্যাকে নিয়ে ৫ সদস্যের সংসার চলছিলো আনন্দেই। গত পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন খুশির বদলে তার পরিবারে নেমে আসে বিষাদ! ঈদের দিন বন্ধুদের সঙ্গে খেলতে গিয়ে ইয়াসিন মিয়ার বাম চোখে কঞ্চির আঘাত লাগে। এ আঘাতে তার বাচোখের কর্ণিয়া নষ্ট হয়ে যায়। এখন সেই চোখের মাংসপিÐ দিন দিন চোখের বাইরে বেরিয়ে আসে। দ্রæত সময়ের মধ্যে তার এই চোখের কর্ণিয়া সংযোজন করা প্রয়োজন, নাহলে তার অপর চোখটিও নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এমন শংকায় দিন কাটছে ছোট্ট শিশু মো. ইয়াসিন মিয়ার পরিবারের।
ইয়াসিন মিয়ার চিকিৎসা করাতে আসেন গৌরীপুর ডা. মুকতাদির চক্ষু হাসপাতালে, তারপরে সেখান থেকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চক্ষু বিভাগে দীর্ঘদিন চলে চিকিৎসা। কিন্তু তার চোখের অবস্থার অবনতি ঘটলে রেফার্ড করা হয় ইস্পাহানী ইসলামিয়া আই ইনস্টিটিউট এ্যান্ড হসপিটালে। সেখান থেকে জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চলে দীর্ঘদিন চিকিৎসা। এ পরিস্থিতিতে অসহায় বাবা ছেলেকে নিয়ে ছুটে চলছেন হাসপাতাল থেকে হাসপাতালে। অর্ধাহারে-অনাহারে চলা পরিবারটি ছেলের চিকিৎসার খরচ যোগাতে আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীদের নিকট থেকে সহযোগিতাও নিয়েছেন বারবার। এখন নিরুপায় অসহায় এই বাবা! সন্তানের চোখে, চোখ রাখতে পারছেন না। প্রয়োজন সহযোগিতা!
বর্তমানে জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের ডা. নুসরাত শারমীনের তত্ত¡াবধানে চিকিৎসাীন রয়েছে। চিকিৎসকদের ভাষ্যমতে, কর্ণিয়া সংযোজন ব্যতিত ইয়াসিনের দৃষ্টি ফিরিয়ে দেয়া সম্ভব নয়। আর এই কর্ণিয়া যোগাড় ও প্রতিস্থাপন করতে প্রয়োজন দেড় লাখ টাকা। হতদরিদ্র পরিবারটির সামনে তিলে তিলে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে সন্তানের চোখের আলো যাতে কেবলই অসহায়ত্বতা। ছেলের এমন অনিশ্চিত জীবন আর ভবিষ্যৎ নিয়ে শংকিত পরিবারটি।
ছোট্ট ইয়াসিনের সমবয়সী বন্ধু ইমতিয়াজ, সোহেলও চায় সে দ্রæত সুস্থ হয়ে আবার তাদের সাথে খেলুক । অসহায় পরিবারটি চায় তাদের সন্তানকে সুস্থ করে তুলতে, শুধু প্রয়োজন মানবিক সহযোগিতা। এ সহযোগিতা পেলেই বাংলাদেশ আই হাসপাতালে চিকিৎসা হবে এই ছোট্ট শিশুটির, ফিরে পাবে চোখের দৃষ্টি, ফিরে পাবে স্বাভাবিকতা। ইয়াসিনের বাবার নগদ বা বিকাশে ০১৭৬৬-৭৩৫৮০৮, মুঠোফোন প্রয়োজনে ০১৯৪৭-৮১৫২১৭ যোগাযোগ করতে পারেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com