শিরোনাম :
ধামইরহাট বড়থা ডি আই ফাজিল মাদ্রাসার বেহাল অবস্থা নওগাঁয় ডিবি পুলিশের অভিযানে ১০১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ ধামইরহাটে অপহরণ মামলার আসামি ইয়াদুল পুলিশের হাতে আটক ধামইরহাটে অর্ধ বার্ষিকী সাফল্য উদযাপন ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে যুব সংগঠন ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত নওগাঁর পত্নীতলায় তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৫ বগুড়ায় রেলের দূরত্ব ভিত্তিক রেয়াত বাতিলের প্রতিবাদে মানববন্ধন চাঁদপুর জেলায় ফরিদগঞ্জ উপজেলায় খাজে আহমেদ মজুমদার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত ধামইরহাটে গ্রামের তরুণদের উদ্যোগে মসজিদের ধান কাটা চলছে নওগাঁয় মাদকসহ র‌্যাবের হাতে আটক ১

পলাশবাড়ীতে রাস্তার গাছ কেটে প্রকল্পের কাজ করছে ইউপি চেয়ারম্যান

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০২৩
  • ৯০ বার পঠিত

রানা ইস্কান্দার রহমান গাইবান্ধা জেলা ব্যুরো প্রধানঃ গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার ১ নং কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত নানা অজুহাতে ইউপি রাস্তার গাছ কর্তনের অভিযোগ উঠেছে। অবৈধভাবে ইউপি রাস্তা গাছ কর্তন করে। সেই গাছের কিছু অংশ দিয়ে তিনি পরিষদের ওয়ান পার্সেন্ট বরাদ্দের অর্থে গ্রহনকৃত প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন করছেন ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক।

সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ১ নং কিশোরগাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে হাজ্বীরঘাট মুখি পাকা রাস্তার মাথায় রাস্তার পাশে থাকা একটি ইউক্লিপর্টাস গাছ কর্তন করে কাশিয়াবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্বাস আলীর ছেলে মোজ্জাফ্ফর ও রইস উদ্দিনের ছেলে ফরিদুল নামে দুই প্রভাবশালী ব্যক্তি যারা এলাকায় দাঙ্গাবাজ হিসাবে ও ইউপি চেয়ারম্যানের স্থানীয় খাস ব্যক্তি এবং অন্যতম সহযোগী হিসাবে ব্যাপক ভাবে পরিচিত বটে। গাছ কর্তনের এ সময় স্থানীয় সাংবাদিক গাছ কর্তনের ছবি তুলতে গেলে মোজ্জাফ্ফর ও ফরিদুল ব্যবহার খারাপ করে বলেন কি করার আছে করেন চেয়ারম্যানের আবু বকর সিদ্দিক এর নির্দেশক্রমে গাছটি কর্তন করা হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক জানান , পরিষদের সামনে একটি ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে সেটিতে একটু কাঠ লাগবে সেজন্য একটি গাছ কর্তন করতে বলেছি। অপর দিকে সচিব আনারুল ইসলাম পরিষদে থাকা অবস্থায় পরিষদের সামনের রাস্তায় গাছ কর্তন এর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান. ঘরটি পরিষদের ওয়ান পাসেন্ট এর বরাদ্দ হতে নির্মাণ করা হচ্ছে। ঘরের জন্য কোন গাছ কাটার বিষয়ে তিনি জানেন না। চেয়ারম্যান ভালো বলতে পারবেন।

স্থানীয়রা জানান,প্রতি নিয়ত নানা অজুহাতে ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে এই দুই ব্যক্তি উক্ত রাস্তা ও পলাশবাড়ী হতে কাশিয়াবাড়ী বাজার মুখি রাস্তার ইউক্লিপর্টাস গাছ কর্তন করে ।

এর আগে গত ২১ আগস্ট তার আরো একটি মোটা গাছ কর্তন করে যার ডালপালা বিক্রি করা হলেও গাছের কিছু অংশ ফারাই করে ইউনিয়ন পরিষদের সামনে রেখে দেয় চর্তুর চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক ।গত ২৩ আগস্ট ভোরে একই কায়দায় আরেক একটি গাছ কর্তন করা হয়। গাছ কর্তনের পর গাছোর গোড়ার কাটা অংশ মাটি দিয়ে ঢেকে দেয়।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুল হাসান জানান,কিশোরগাড়ী ইউনিয়নে গাছ কর্তনের বিষয়ে আমাকে জানানো হয়নি বা অনুমতি নেওয়া হয়নি। উক্ত বিষয়ে সরজমিনে দেখে ও জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক দায়িত্ব গ্রহনের পর হতে উক্ত ইউপি রাস্তার গাছ গুলো সরকারি ছুটির দিন কখনো দিনে আবার কখনো রাতে আধারে এভাবে একটি দুটি করে গাছ কর্তন করা হলেও সংশ্লিষ্টরা নিরব ভূমিকা পালন করায় জনমনে নানা জল্পনা কল্পনা চলমান রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com