শিরোনাম :
ধামইরহাট বড়থা ডি আই ফাজিল মাদ্রাসার বেহাল অবস্থা নওগাঁয় ডিবি পুলিশের অভিযানে ১০১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ ধামইরহাটে অপহরণ মামলার আসামি ইয়াদুল পুলিশের হাতে আটক ধামইরহাটে অর্ধ বার্ষিকী সাফল্য উদযাপন ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে যুব সংগঠন ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত নওগাঁর পত্নীতলায় তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৫ বগুড়ায় রেলের দূরত্ব ভিত্তিক রেয়াত বাতিলের প্রতিবাদে মানববন্ধন চাঁদপুর জেলায় ফরিদগঞ্জ উপজেলায় খাজে আহমেদ মজুমদার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত ধামইরহাটে গ্রামের তরুণদের উদ্যোগে মসজিদের ধান কাটা চলছে নওগাঁয় মাদকসহ র‌্যাবের হাতে আটক ১

বিবাহ / তালাক ও বিচ্ছেদের ডিজিটালাইজেশনের জন্য হাইকোর্টে রিট

মোঃ মোজাম্মেল হোসেন বাবু স্টাফ রিপোর্টার রাজশাহীঃ
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৫ মার্চ, ২০২১
  • ২৭৫ বার পঠিত

০৪ মার্চ ২০২১ ইং

মানবাধিকার সংগঠন এইড ফর মেন ফাউন্ডেশনের পক্ষে বিবাহ ও বিবাহ বিচ্ছেদের (ডিভোর্সের) তথ্য ডিজিটালাইজেশনের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট দায়ের করা হয়। রিটের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ইশরাত হাসান। রিট আবেদনে আইন মন্ত্রণালয় সচিব, তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সচিব এবং ধর্ম মন্ত্রণালয় সচিবকে বিবাদি করা হয়েছে।
রিটে বলা হয়, বিবাহ ও বিবাহ বিচ্ছেদের রেজিস্ট্রেশনের আইনগত বিধান থাকলেও তা ডিজিটাল না করার ফলে অসংখ্য প্রতারণার ঘটনা ঘটেছে। এছাড়াও, বিয়ে গোপন রেখে ডিভোর্স না দিয়ে বিয়ের ঘটনা ঘটছে। এর ফলে, সন্তানের বাবার পরিচয় নিয়েও জটিলতা দেখা যাচ্ছে। বিবাহ সংক্রান্ত অপরাধ বেড়ে অসংখ্য মামলার জন্ম নিচ্ছে। তাই, বিয়ে ও ডিভোর্স রেজিস্ট্রেশন ডিজিটাল হওয়া একান্ত আবশ্যক। যাতে যেকোনো ব্যক্তি বিয়ে বা ডিভোর্স দিলে তা ডিজিটালাইজেশনের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর সার্চ দিয়ে তথ্য বের করা সম্ভব হয়। এতে করে সাধারণ মানুষ প্রতারণার হাত থেকেও রক্ষা পাবে। এছাড়া রিটে দেনমোহরের প্রসঙ্গও তুলে আনা হয়েছে। বিয়েতে অযাচিতভাবে পাত্রপক্ষের কাছে দেনমোহরের দাবি করা হয়। তাই এসব বিষয়ে সুরাহা হওয়া প্রয়োজন বলে রিটে আরজি জানানো হয়।
রিট এর বিষয় জানতে চাইলে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম নাদিম বলেন, ‘প্রতিদিনই অসংখ্য ভুক্তভোগী আমাদের সাথে যোগাযোগ করেন। তারা তাদের স্ত্রীদের নিকট থেকে গোপনে বিয়ে করা নিয়ে সময়ে সময়ে প্রতারিত হয়েছেন। এখনই বিবাহ/তালাক পদ্ধতি ডিজিটালাইজেশন এর আওতাভুক্ত না করা গেলে অচিরেই প্রতারণামূলক বিবাহ মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়বে।’ রিটের বিষয়ে ঢাকা জেলার আহবায়ক হাদিউজ্জামান পলক বলেন, ‘একজন আইটি এক্সপার্ট হিসাবে বলতে পারি, অবৈধ ও প্রতারণামূলক বহুবিবাহ বন্ধে দেশের প্রতিটি কাজী অফিসকে নির্দিষ্ট সফটওয়্যার এর মাধ্যমে বিয়ে কিংবা তালাক পদ্ধতিকে অনলাইনের আওতায় আনতে মহতী উদ্যোগ গ্রহণে আর বিলম্ব করার বিন্দু পরিমাণে সময় নেই ।

মোঃ মোজাম্মেল হোসেন বাবু
স্টাফ রিপোর্টার
দৈনিক বাংলাদেশ ক্রাইম সংবাদ

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com