শিরোনাম :
ধামইরহাট বড়থা ডি আই ফাজিল মাদ্রাসার বেহাল অবস্থা নওগাঁয় ডিবি পুলিশের অভিযানে ১০১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ ধামইরহাটে অপহরণ মামলার আসামি ইয়াদুল পুলিশের হাতে আটক ধামইরহাটে অর্ধ বার্ষিকী সাফল্য উদযাপন ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে যুব সংগঠন ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত নওগাঁর পত্নীতলায় তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৫ বগুড়ায় রেলের দূরত্ব ভিত্তিক রেয়াত বাতিলের প্রতিবাদে মানববন্ধন চাঁদপুর জেলায় ফরিদগঞ্জ উপজেলায় খাজে আহমেদ মজুমদার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত ধামইরহাটে গ্রামের তরুণদের উদ্যোগে মসজিদের ধান কাটা চলছে নওগাঁয় মাদকসহ র‌্যাবের হাতে আটক ১

বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কে বাঁচাতে এগিয়ে আসার আহবান।

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৫৩০ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধার একমাত্র সন্তান মোহাম্মদ আলী জুয়েল কে এগিয়ে আসার আহবান জানালেন মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী রোকেয়া বেগম।চট্টগ্রাম জেলার সন্দ্বীপ উপজেলার গাছুয়া ইউনিয়নে মোহাম্মদ আলী জুয়েলের বাড়ি।হামিদ দর্জির বাড়ির মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমানের ও রোকেয়া বেগমের একমাত্র সন্তান মোহাম্মদ আলী জুয়েল।

উল্লেখ্য যে,গত ২৩শে জানুয়ারী হঠাৎ করে স্ট্রক করেন মোহাম্মদ আলী জুয়েল।সন্দ্বীপ গাছুয়া মেডিকেল নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে চট্টগ্রামে নিয়ে যেতে বলে।চট্টগ্রামের একটা প্রাইভেট ক্লিনিকে তার চিকিৎসা চলছে গত ২৩শে জানুয়ারী থেকে এখন পর্যন্ত।আরো ৫০/৬০দিন থাকতে হবে বলে দাবি করেন ডাক্তার।স্ট্রক করার পরে এক হাত ও এক পা এখনো অচল।সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় যে,মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান ও রোকেয়া বেগমের একমাত্র সন্তান হাসপাতালে চিকিৎসা প্রায় বন্ধ হয়ে আছে টাকার অভাবে।

দীর্ঘ ২৩ দিন ধরে মোহাম্মদ আলী জুয়েলের মামা চিকিৎসা খরচ চালিয়ে আসছেন।এই পর্যায়ে এসে তিনিও প্রায় ব্যর্থ হয়ে আছেন।এমতাবস্থায় মোহাম্মদ আলী জুয়েলের মা রোকেয়া বেগম দেশবাসীর কাছে দোয়া ও আর্থিক সহযোগিতা চেয়েছেন।

রোকেয়া বেগম আরো বলেন আমার স্বামী একজন মুক্তিযোদ্ধা।বর্তমানে তিনি আমাদের মাঝে নেই।আমার একমাত্র সন্তান হাসপাতালে চিকিৎসার অভাবে পড়ে আছে তাই আমি দেশবাসীর কাছে দোয়া ও আর্থিক সাহায্য কামনা করছি।তাছাড়া আমাদের কোন ধন-সম্পদ অথবা জায়গা জমিও নেই যে বিক্রি করে একমাত্র সন্তানের চিকিৎসা চালিয়ে যেতে পারবো।

এদিকে মোহাম্মদ আলী জুয়েলের সাথে কথা বলার চেষ্টা করে হলেও তিনি কথা বলতে পারছেন না।ইশারায় ছাড়া কথা বলতে পারছেন।ডাক্তারের সাথে কথা বলে জানা যায় আরো ৫০/৬০দিন থ্যারাপি চালিয়ে যেতে হবে।এখন দৈনিক ২০০০টাকা বিল আসে বলে জানা যায়।আসুন আমরা যার যার অবস্থান থেকে এই মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে সহযোগিতা করি ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়ায়।

#বিকাশ পারসোনাল নাম্বার-০১৬১৫-৫০৯১৪৭

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com