শিরোনাম :
ধামইরহাট বড়থা ডি আই ফাজিল মাদ্রাসার বেহাল অবস্থা নওগাঁয় ডিবি পুলিশের অভিযানে ১০১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ ধামইরহাটে অপহরণ মামলার আসামি ইয়াদুল পুলিশের হাতে আটক ধামইরহাটে অর্ধ বার্ষিকী সাফল্য উদযাপন ও যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে যুব সংগঠন ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত নওগাঁর পত্নীতলায় তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৫ বগুড়ায় রেলের দূরত্ব ভিত্তিক রেয়াত বাতিলের প্রতিবাদে মানববন্ধন চাঁদপুর জেলায় ফরিদগঞ্জ উপজেলায় খাজে আহমেদ মজুমদার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত ধামইরহাটে গ্রামের তরুণদের উদ্যোগে মসজিদের ধান কাটা চলছে নওগাঁয় মাদকসহ র‌্যাবের হাতে আটক ১

শাহজাদপুরে নিয়ম বহির্ভূতভাবে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৩০২ বার পঠিত

কে এম নাছির উদ্দীন সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার:সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌর এলাকার রবীন্দ্র কাছারি বাড়ির নিকটে নিয়ম বহির্ভূতভাবে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। নিয়ম বহির্ভূতভাবে নির্মাণ করা এ ভবনটি দ্রুত ভেঙে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে সচেতন মহল। রবীন্দ্র কাছারি বাড়ির কাষ্টোডিয়ান আবু সাঈদ ইনাম তানভিরও এ ভবন নির্মাণ বন্ধ ও নির্মান সামগ্রী অপসারনের জন্য পত্র দিয়েছে।

জানাগেছে, জদুনাথ সাহার ছেলে শ্রী কালীপদ সাহা, ও শ্রী কার্তিক চন্দ্র সাহা এর নিকট থেকে ষ্টেশন শাহজাদপুর, মৌজা দ্বারিয়াপুর। জেএল- ৫৩,এসএ ৫৩৫১ দাগে আধা শতক এবং এস-৫৩৫৪ দাগে ২.৫ শতক দেখা যায় , যা বর্তমান আর এস দাগ- ১০১৮৫ দাগে ২.৬১ শতক, ১০১৮৬ দাগে ৩.৬২ শতক। এই দলিল নিয়ে সংসয় রয়েছে।

এ জায়গাটি যা রবীন্দ্র কাছারি বাড়ির সম্পত্তি বটে। যা দেখা যায় বর্তমান ১ নং খাস খতিয়ানের সম্পত্তি।

এই সম্পত্তি বর্তমান দ্বারিয়াপুর মহল্লার মৃত বসির উদ্দিনের ছেলে আবু বক্কার ও জলিল এর নামে ৬.২৩ শতক সরকারি সম্পত্তি অবমুক্ত করে নিয়েছে বলে শোনা যায় কিন্তু কাগজপত্র এখনো পাওয়া যায়নি৷ মনে হচ্ছে এটা নিয়ম বহির্ভূতভাবে করা হয়েছে। এবং সেই জায়গাতে মৃত আবু বক্কারের ছেলে ইমরান ও পলাশের নেতৃত্বে বহুতল ভবন নির্মাণ করছে। ইতিমধ্যে দ্বোতলা সম্পন্ন করেছে।

সরকারি সম্পত্তি অবমুক্ত করা কতটুকু নিয়ম আছে আমাদের জানা নেই। কালীপদ সাহা ও কার্তিক চন্দ্র সাহা কিভাবে সরকারি সম্পত্তির মালিক হলো এবং কিভাবে সরকারি সম্পত্তি অবমুক্ত করা হয়েছে,। সিএস খতিয়ান ৬০৫ এর মালিক মাধাই মদক। এই দাগে কালীপদ সাহা ও কার্তিক চন্দ্র সাহা কিভাবে মালিক হলো। এসএস ৫৩৫১ ও ৫৩৫৪ দাগ সরেজমিনে নকসার সাথে মিল নেই।
পুর্বের কাগজপত্র যাছাই বাছাই করে যদি নিয়মবহির্ভূতভাবে অবমুক্ত করা হয়ে থাকে তাহলে অবমুক্ত বাতিল করে ভবনটি ভেঙে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে সচেতন মহল। রবীন্দ্র কাছারি বাড়ির কাছাকাছি সরকারি জায়গাতে বহুতল ভবন নির্মাণ করা কতটুকু বিধি সম্মত এটা যাচাই বাছাই করে দেখা প্রয়োজন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজরিত এ কাছারি বাড়ি রক্ষনাবেক্ষন ও সৌন্দর্য রক্ষা করা প্রয়োজন। এরা অতি কৌশলে রাতের আধারে বিপুল সংখ্যক শ্রমিক দ্বারা অতি দ্রুত দ্বোতলা নির্মাণের কাজ করছে জনসার্থে বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ করা হয়েছে।

সচেতন মহলের মতে, প্রশাসনের পক্ষ থেকে যদি দ্রুত এ ভবনটি ভাঙ্গার উদ্যোগ না নেয় তাহলে শাহজাদপুরবাসীর মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হবে এবং রবীন্দ্র কাছারি বাড়ির আশপাশে আরো মানুষ বহুতল ভবন নির্মাণে উৎসাহীত হবে। সেই সাথে নষ্ট হবে পুরাকীর্তি রবীন্দ্র কাছারি বাড়ির সৌন্দর্য।

তাই, দ্রুত ভবনটি ভেঙে জায়গাটি পুনরায় সরকারি ক তপসীলভুক্ত করার দাবি জানিয়েছে সচেতন মহল।
তবে, বক্কারের ছেলে ভবন নির্মাণকারী পলাশ বলেন, আমাদের পক্ষে রায় পেয়েছি। আমাদের নামে জায়গা সবকিছু ঠিকঠাক আছে। তাই, আমরা আমাদের জায়গায় কাজ করছি। কাজ করা অবস্থায় রবীন্দ্র কাছারি বাড়ির কাষ্টোডিয়ান আমাদের একটি চিঠি দিয়েছে যেটা আমার মনে হচ্ছে উনি নিয়মবহির্ভূতভাবে দিয়েছে। তারপরেও উনি চিঠি দেওয়ার পর নির্মাণ কাজ বন্ধ রেখেছি।

এবিষয়ে, রবীন্দ্র কাছারি বাড়ির কাষ্টোডিয়ান আবু সাঈদ ইনাম তানভিরুল বলেন, ইতিমধ্যেই ২য় তলার কাজ বন্ধ সহ সম্প্রতি নবনির্মিত কাঠামো ও সকল নির্মাণ সামগ্রী অপসারণ করার চিঠি দেওয়া হয়েছে। উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।

এরপরেও নির্মাণ কাজ চলমান রাখলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com